Google Ads

কবরের ভয়াবহতা । পর্ব-১






রাসূল (সা:) বলেন: কবর হচ্ছে জান্নাতের বাগানসমূহ থেকে একটি বাগান অথবা জাহান্নামের গর্ত সমূহ থেকে একটি গর্ত। অর্থাৎ কেউ যদি ভালো কাজ করে তাহলে কবর তার জন্য জান্নাতের বাগানে পরিণত হবে আর কেউ যদি খারাপ কাজ করে তাহলে কবর তার জন্য জাহান্নামের গর্তে পরিণত হবে। অন্য হাদিসের মধ্যে এসেছে, রাসূল (সা:) বলেন: আমি কবরের চেয়ে অধিক ভিতিকর স্থান আর কোথাও দেখিনি। 

হযরত উসমান (রা:) যখনি কোনো কবরকে দেখতেন তখনি তিনি অঝর দ্বারায় কাঁদতে থাকতেন। এমনকি কাঁদতে  কাঁদতে তার দাড়ি ভিঁজে যেতো। জিজ্ঞেস করা হলো যে জান্নাত জাহান্নামের আলোচনা হলে তো  আপনি এতো কাঁদেন না, কিন্তুু কবরকে দেখলে আপনি এতো কাঁদেন কেনো? তিনি উত্তর দিলেন: যে "রাসূল (সা:) আমাকে বলেছেন: কবর হচ্ছে আখিরাতের ঘাঁটি সমূহ থেকে সর্ব প্রথম ঘাঁটি। কেউ যদি এই ঘাঁটি থেকে মুক্তি পেয়ে যায় তাহলে বাকি-গুলো থেকে মুক্তি পাওয়া তার জন্য সহজ হবে আর কেউ যদি এই ঘাঁটি থেকে মুক্তি না পায় তাহলে তার জন্য অপেক্ষা করছে ভয়াবহ বিপদ"। এজন্যই আমি কবরকে দেখলে কাঁদি। আমি চিন্তা করি যে আমি কি এই ঘাঁটি থেকে মুক্তি পাবো? 


হাদিসের মধ্যে এসেছে, কবর প্রত্যেকদিন ডাক দিয়ে বলতে থাকে: "আমি হচ্ছি নির্জনতা ও একাকিত্বের ঘর। আমি হচ্ছি মাটির ঘর। আমি হচ্ছি কীট-পতঙের ঘর।"

হে দুনিয়ার জিবনের প্রতি আকৃষ্ট ব্যাক্তিবর্গ:- যারা স্থায়ী ঠিকানা আখিরাতকে ভুলে গিয়ে দুনিয়ার জিবনকে চিরস্থায়ী মনে  করেছো,
হে লোক-সকল:- যারা দুনিয়ার মোহে পরে স্রাষ্টাকে ভুলে গেছো, মনে রেখো এই ক্ষণস্থায়ী পৃথিবী ছেড়ে তোমাকেও একদিন চলে যেতে হবে। যেই দুনিয়ার জন্য তুমি এতো মেহনত করছো, যেই দুনিয়ার জন্য তুমি এতো পরিশ্রম করছো,
যেই দুনিয়ার জন্য তুমি তোমার সর্বশ্যকে বিলিয়ে দিচ্ছো, সেই স্বপ্নের পৃথীবি থেকে তোমাকেও একদিন বিদায় নিতে হবে।

তোমার মৃত্যুর পর তোমার আত্মীয়-স্বজন, তোমার আদরের সন্তানেরা তোমাকে কাফন-দাফন করে তোমাকে অন্ধকার কবরে রেখে আসবে। মনে রেখো কবর হচ্ছে এমন এক অন্ধকার কুটোরি যেখানে আলো-বাতাস কোনো কিছুই থাকবেনা।কবর হচ্ছে এমন এক অন্ধকার গৃহ যেখানে তোমাকে একাই থাকতে হবে। তোমার পিতা-মাতা, স্ত্রী-সন্তান, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব কেউ তোমার সাথে যাবেনা। সবাই তোমাকে সেই অন্ধকার গৃহে একা রেখে চলে আসবে। 

কিন্তুু জেনে রাখো সেই নির্জন মুহূর্তে একটি জিনিসি তোমার সঙ্গ নেবে। সেটি হচ্ছে তোমার- "নেক আমল"। 

তুমি যদি নেক আমল করো তাহলে কবর তোমার জন্য জান্নাতের বাগানে পরিণত হবে। আর তুমি যদি দুনিয়াতে গুনাহ ও পাপাচার করে থাকো তাহলে কবর তোমার জন্য জাহান্নেম একটি গর্তে পরিণত হবে।

সুতরাং আসোনা আমরা আমাদের জিবনকে ভালো কাজে ব্যয় করি। আমরা বেশি বেশি করে নেক আমল করি আর খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকি।

No comments

Powered by Blogger.